একটি নতুন ধরণের লুডু

আসসালামু আলাইকুম।
এই পোস্টটা একেবারেই টেক-রিলেটেড না। আসলে নিজের বানানো তো একটু শেয়ার করতে ইচ্ছা হলো।


গত রমজানের আগের রমজানে খুব একাকী লাগছিলো। কারন সবচেয়ে ক্লোজ ফ্রেন্ড চলে গিয়েছিলো অন্য জেলায়। তখন টাইমপাস করার জন্য আর রোজা রেখে সময় কাটানোর জন্য মাথায় ধার দিতে লাগলাম এবং তিন-চার রকম লুডু বানালাম। এটা তার মধ্যে আমার মনে হয় তুলনামূলক ভালো তাই শেয়ার করছি।
এই বোর্ডটার সাথে সম্ভবত সবাই অপরিচিত। আসলে পৃথিবীর মাত্র ১০-১২ জন পরিচিত। এটা বানাতে মাথায় প্রচুর শান দিতে হয়েছে আর প্রচুর ভাবতে হয়েছে। এটার নাম দিয়েছি সিম্পল হোম লুডু। মানে এটা হোম লুডুর চাচাত ভাই।
খেলার নিয়ম-
১। ২-৪ জন খেলতে পারবে।
২। ১-৪ গুটিঁ দ্বারা খেলা যাবে।
৩। জোড়া গুটিঁ ও খাওয়াখাওয়ি চলবে।
৪। ৬ মারলে যাত্রা শুরু।
৫। নিজ গুঁটি ব্যাতিত(হিহি, আর ঘরে বসে থাকা চলবে না) অন্যান্য গুটিঁর যাত্রা শুরুর স্থান স্টপেজ।
৬। গুটিঁ চালানোর সময় তীরচিহ্ন অনুসরণ করতে হবে। নির্দিষ্ট রংয়ের তীর চিহ্ন কেবল ওই রংয়ের গুটিঁর মালিককে অনুসরণ করতে হবে।
৭। নিজ গুটিঁর রংবিশিষ্ট ত্রিকোণাকৃতির ঘরে যাত্রা শেষ হবে।
৮। লক্ষ্য করলে দেখবেন আসলে এটা চতুর্ভুজ হলেও এটার ভেতর গুটিঁ সার্কেলের মত ঘুরে ঘুরে আগের স্থানেই চলে আসবে। ৩ টা এরকম চতুর্ভুজের মত সার্কেল আছে। একটা থেকে আরেকটাই যাওয়ার জন্য অনবরত ঘুরতে থাকতে হবে যতক্ষণ না নিজ রংবিশিষ্ট তীরচিহ্নে পৌছাচ্ছেন। এভাবে একসময় মাঝখানের ত্রিকোণাকৃতির ঘরে পৌছে যাবে। না বুঝলে কমেন্ট করুন।
তো কেউ যদি এটা খেলতে চান তবে ছবিটি রঙিন প্রিন্টারে প্রিন্ট করে নিন অথবা খাতায় একেঁ নিন। কার্টিজ পেপারে সিম্পলি এভাবে একেঁ নিতে পারেন-




কিভাবে আঁকবেন না বুঝলে এই ছবিটা দেখুন-


শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি দুইটি করে হাত, পা কান, চোখ বিশিষ্ট একজন মানুষ। নাম তাহমিদ হাসান মুত্তাকী। আমি একজন মুসলিম। বাংলাদেশের অধিবাসী। বয়স ১৫ বছর। নবম শ্রেণিতে পড়ি।। গ্রিন রেঞ্জারস+ এর প্রতিষ্ঠাতাদের একজন। আমাকে ফেসবুকে পেতে এখানে যান।

Image result for facebook.icon 30x30   Image result for Google Plus.icon 30x30

পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট