২০১৫ সালের টেক ওয়ার্ল্ডের সেরা ১০ তরুন বিলিওনেয়ার!

বিশ্বের বিলিয়নেয়ারদের দিকে তাকালে দিলে দেখা যায়, অধিকাংশ বিলিয়নিয়ার টেকনোলোজি জগতের নায়ক বলা চলে!
বিল গেটস হলো আর উপযুক্ত উদাহরণ। কারণ টেকনোলোজি জগতে বিল গেটসই গোটা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি। যার বিলিয়নিয়ার হওয়ার অস্ত্র ছিল শুধুই টেকনোলোজি। তরুণ বিলিনিয়রদের দিকে তাকালেও সেখানে দেখা যায় টেকনোলোজির জয়জয়কার।
 হ্যাঁ, এখনকার তরুণদের আদর্শ কয়েকজন টেক ওয়ার্ল্ড বিলিওনেয়ারদের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো।

নিচে টাকার অংকে নয়, বয়স অনুজায়ি সাজিয়ে দেওয়া আছে, থাঙ্কস টু মারুফ ভাই!

#১ ইভান স্পিজেল


ইভান স্পিজেল - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার


ছবি শেয়ারিং মাধ্যম “স্ন্যাপচ্যাটের” সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও ইভান স্পিজেল হলেন বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী বিলিয়নিয়ার। ১.৫ বিলিয়ন ডলারের এই টেক হিরোর বয়স মাত্র ২৪ বছর।



#২ ববি মারফি


ববি মারফি - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
স্ন্যাপচ্যাটের আরেক সহ-প্রতিষ্ঠাতা হলেন ববি মারফি। ইভান স্পিজেলের সহযোগী ববি মারফিরও সম্পত্তির পরিমাণ ১.৫ বিলিয়ন ডলার। আর বয়সে তিনি ২৬।


#৩ মার্ক জাকারবার্গ

মার্ক জাকারবার্গ - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
টেক জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় তরুণ উদ্যোক্তা এবং জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা হলেন মার্ক জাকারবার্গ। ৩৬.৩ বিলিয়ন ডলারের মালিক হয়ে এখন তিনি তরুণ বিলিয়নিয়ারদের মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছেন। এখন তাঁর বয়স ৩০। শুধু তরুণ বিলিয়নিয়ার হিসেবেই নয়, জনপ্রিয় ম্যাগাজিন ফোরবসের প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৫ সালের সেরা বিলিয়নিয়ারদের মধ্যে তিনি ২০ নং অবস্থানে রয়েছেন।

#৪ ডাস্টিন মস্কোভিচ

ডাস্টিন মস্কোভিচ - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
সফটওয়্যার ফার্ম “আসানা” –এর সহপ্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও হলেন ডাস্টিন মস্কোভিচ। তিনি ফেসবুকে নিয়োগ পাওয়া তৃতীয় কর্মী হিসেবেও জানা যায়। ২০০৮ সালে তিনি ফেসবুক ছেড়ে দিয়ে গড়ে তুলেন সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান “আসানা”। বর্তমানে তাঁর বয়স ৩০ এবং সম্পত্তির পরিমাণ ৮.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

#৫ রায়ান গ্রেভস

রায়ান গ্রেভস - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
ইউবারস এর প্রথম কর্মী রায়ান গ্রেভস হলেন রায়ান গ্রেভস। ৩১ বছর বয়সী রায়ান গ্রেভস ১.৪ বিলিয়ন সম্পত্তির মালিক।

#৬ ড্রিউ হাস্টন

ড্রিউ হাস্টন - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
জনপ্রিয় ফাইল শেয়ারিং সাইট ড্রপবক্সের সহপ্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও হলেন ড্রিউ হাস্টন। তাঁর বর্তমান বয়স ৩২। ২০০৭ সালে শুরু করা ড্রপবক্স ২০১৫ সালে তাঁকে বানিয়েছে ১.২৪ বিলিয়ন ডলারের মালিক।

#৭ এদুয়ার্দো স্যাভেরিন

এদুয়ার্দো স্যাভেরিন - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
এদুয়ার্দো স্যাভেরিন ৪.৯ ডলারের মালিক। তিনি ফেসবুকের আরেক সহ-প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়া তাঁর সম্পদের উৎস হলো সিঙ্গাপুরের হাম্পটন ক্রিক এবং সিলভারকার-এ বিনিয়োগ।

#৮ সিন পারকার

সিন পারকার - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
সিন পারকার ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাটা সভাপ্রতি এবং ন্যাপস্টারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা। ৩৫ বছর বয়সে তিনি ২.৫ বিলিয়ন ডলার সম্পত্তির মালিক।

#৯ মাইক ক্যানোন-ব্রুকস

মাইক ক্যানোন-ব্রুকস - টেকনোলোজি জগতের সেরা ১০ তরুণ বিলিয়নিয়ার
অস্ট্রেলিয়ার সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান “আটলাসিয়ান” –এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন মাইক ক্যানোন-ব্রুকস। অবশ্য তিনি এই সফটওয়্যার ফার্ম তাঁর কলেজ বন্ধু স্কট ফারকোয়ারকে সাথে নিয়ে করেছিলেন। ১.১ বিলিয়ন ডলার মালিক মাইক ক্যানোন-ব্রুকসের বয়স এখন ৩৫।

#১০ স্কট ফারকোয়ার


মাইক ক্যানোন-ব্রুকসের সহযোগি বন্ধু স্কট ফারকোয়ারও তাঁর বন্ধুর বয়সেরই এবং সম্পদেও সমান! বয়স ৩৫, সম্পদের পরিমাণ ১.১ বিলিয়ন ডলার! তিনি মাইক ক্যানোন-ব্রুকসের সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান “আটলাসিয়ান” – এর সহযোগি ছিলেন।

শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি তাওসিফ তুরাবি, অনলাইনাম (অনলাইন + নাম) ব্লগার তাওসিফ। এখন, ২০১৬ পর্যন্ত আমি ১৬ বছরের এক কিশোর। পড়াশোনা করি শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজে। টেক ব্লগ লিখতে ভালবাসি। সাইন্স ফিকশন আর গল্প লিখতে পছন্দ করি।  জিআর+ ব্লগের এর একজন প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডমিন।
আমাদের একটা ওয়েব ডেভেলপার ফার্ম আছে যার নাম জিআর+ আইটি বাংলাদেশ
এছাড়া আমার ব্যাক্তিগত ব্লগ রয়েছে। আমার ফেসবুক আইডিতে আমার সাথে সর্বক্ষণ যোগাযোগ করতে পারবেন। 


পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট