ফারক্রাই ২ - Farcry 2

প্রতিটি সিরিজের মতো এর গ্রাফিক্স অসাধারন। এর পরিবেশের ইফেক্ট আরও মনমুগ্ধকর করে তোলে একে।

গেমটি বাজারে আসে ২০০৮ সালের শেষের দিকে।
 ফারক্রাই সিরিজের অরিজিনাল নির্মাতা ক্রাইটেক গেমটির নির্মাণে ছিলেন না। ফারক্রাই ২ গেমটির সাথে ফারক্রাই গেমটির তেমন কোনো মিলই নেই।  নতুন গেম ইঞ্জিণ, চরিত্র এবং কাহিনী এর নতুনত্ব প্রমান করে।
 আর সবচেয়ে বড় কথা গেমটি ওপেন ওর্য়াল্ড গেম-প্লে যেখানে ফারক্রাই গেমটি লাইনার গেম-প্লে ফিচার করেছিল।

গেমটির বেস মধ্য আফিকায়।
যেখানে চলছে গৃহযুদ্ধ এবং দাঙ্গা। সেখানে খেলোয়াড়কে “দ্যা জ্যাকাল” নামক একটি দুর্ধষ অস্ত্র ব্যবসায়ীকে খুন করতে হবে।
২০০৯ সালের জানুয়ারী মাস পর্যন্ত গেমটি ২ দশমিক ৯ মিলিয়ন কপি বিক্রি করতে সক্ষম হয়।






  • নির্মাতাঃ ঊবিসফট মন্টিয়াল
  • প্রকাশ করেছে: ঊবিসফট
  • সিরিজ: ফারক্রাই
  • ইঞ্জিণ: দুনিয়া
  • প্ল্যাটফর্মঃ মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, প্লে-স্টেশন ৩, এক্সবক্স ৩৬০
  • মুক্তি পেয়েছে: অক্টোবর-নভেম্বর-ডিসেম্বর ২০০৮
  • ক্যাটাগরিঃ ফার্স্ট পারসন শুটার, ড্রাইভিং, এডভেঞ্চার
  • গেইম টাইপঃ সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার


সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস:

সর্বনিম্নে,


  • ডুয়াল কোর প্রসেসর,
  • ১ গিগাবাইট র‌্যাম,
  • ২৫৬ মেগাবাইট বিল্ট ইন ভিজিএ
  • ৬ গিগাবাইট ফ্রি হার্ডডিক্স স্পেস,
  • উইন্ডোজ এক্সপি সার্ভিস প্যাক ৩ অপারেটিং সিস্টেম
  • ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি




ভালো হয় যদি,


  • কোর ২ ডুয়ো অথবা এথলন ৬৪ এক্স২ ৫২০০ অথবা এএমডি ফেনম প্রসেসর,
  • ২ গিগাবাইট র‌্যাম,
  • ৫১২ মেগাবাইট গ্রাফিক্স কার্ড,
  • ৬ গিগাবাইট ফ্রি হার্ডডিক্স স্পেস,
  • উইন্ডোজ ভিসতা অপারেটিং সিস্টেম,
  • ডাইরেক্ট এক্স ১০



গেম-প্লেঃ
গেমটিতে রয়েছে নিজস্ব স্বাধীনতা। রয়েছে বিভিন্ন ধরণের গাড়ির সমাহার। তবে সবগুলোই মরুভূমি ভিক্তিক। গেমটির ম্যাপের আয়তন ৫০ বর্গকিলোমিটার।যা জিটিএ স্যানএনড্রেস গেমটির প্রায় দ্বিগুণ। গেমটির ম্যাপকে দুটি অঞ্চলে ভাগ করা হয়েছে।

গেমটিতে শত্রুপক্ষ হিসেবে থাকছে বিভিন্ন জঙ্গী সংস্থা। গেমটিতে আবহাওয়ার একটি চমৎকার সিস্টেম রয়েছে। রাত-দিন সহ সকাল,দুপুর,বিকাল,গোধূলি, মধ্যরাত ইত্যাদি সময়ের ইফেক্ট খুবই চমৎকার ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে গেমটিতে।

গেমটিতে তুমি মিলিটারী স্টাইলে ফেস টু ফেস যুদ্ধ কিংবা সাইলেন্স অস্ত্র ব্যবহার করে হিটম্যানের মতো “স্নিক” করে খেলতে পারবে। তবে এর জন্য রাত্রবেলাই চমৎকার সময়।

প্লেয়ারের স্বাস্থ্যকে ৫টি স্ট্যাটাসে ভাগ করা হয়েছে। শেষের ২টি ভাগে স্বাস্থ্য নেমে এলে তা মারাত্বক আহতের নির্দেশ করবে।আহত হলে তারাতারি রিকোভার এর জন্য সাইরেটস এর ব্যবহার করতে হবে অথবা লুকিয়ে থাকতে হবে শত্রুদের গুলি থেকে কিছুক্ষণের জন্য।
গেমটিতে রয়েছে বিভিন্ন শ্রেণীর প্রচুর অস্ত্রের সমাহার।

এদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন প্রকারের ব্যাটল রাইফেল, শটগান, স্নাইপার রাইফেল, রকেট লাঞ্চার, হ্যান্ডগান এবং লাইট মেশিনগান। বহনের জন্য এই সব অস্ত্রগুলোকে তিনটি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও হ্যান্ড গ্রেণেড এবং মটোলভ ও রয়েছে।

গেমটিতে অস্ত্র ব্যবহারে রিয়েল লাইফ ইফেক্ট দেওয়া হয়েছে। অস্ত্রসমূহ ব্যবহার করতে করতে পুরোনো হতে থাকবে এবং জং ধরবে এবং এক সময় তা ফেলে দিতে হবে। আনলিমিটেড অস্ত্রের সাপ্লাই রয়েছে অস্ত্রের দোকানসমূহতে। উল্লেখ্য যে, স্পেশাল অস্ত্রসমূহ শুধুমাত্র অস্ত্রের দোকানের সাইড-মিশনসমূহ হতেই আনলক করতে হবে।

ফারক্রা্ই ২ গেমটি সিরিজের আগের গেমটির সাইন্স ফিকশন স্টোরিলাইন ফলো না করে বাস্তবভিক্তিক একটি কাহিনীচক্র প্লেয়ারকে উপহার দিবে। গেমটির কাহিনীর পটভূমি ২০০৮ সালের শেষের দিকে মধ্য আফ্রিকার একটি দাঙ্গা-গৃহযুদ্ধ কবলিত দেশের রাজনীতিকে ঘিরে সাজানো হয়েছে। দেশের সরকার ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে দুটি পার্টিতে বিভক্ত হয়েছে। একটি হচ্ছে ইউনাইটেড ফ্রন্ট ফর লিবারেশন এবং লেবর (UFLL) এবং আরেকটি দল হচ্ছে এলিয়েন্স ফর পপুলার রেজিস্টেনস (APR)। UFLL পরিচালিত হয় দেশটি বিরোধী দলের দ্বারা এবং APR পরিচালিত হয় সাবেক সরকারী দলের দ্বারা।
এই দুই দলই অতীতে অনেক বিদেশী ভাড়াটে খুনিদের ভাড়া করে আনে বিপক্ষ দলকে শেষ করে দিতে। তবে ব্যর্থ হয় সব প্রচেষ্টাই। দেশটির অর্থব্যবস্থাও ধসে পড়ে এবং দেশটিতে মুদ্রা ব্যবস্থা নেই রয়েছে ডায়মন্ড বিনিময় প্রথা।
গেমটিতে প্লেয়ার এর লক্ষ হলো জ্যাকাল নামক একজন অস্ত্র ব্যবসায়ীকে খুঁজে বের করা এবং খুন করা।
জ্যাকাল একজন ৫২ বছর বয়সী অস্ত্র ব্যবসায়ী। যিনি দেশটির দুটি দলের অস্ত্রের প্রধান সরবরাহকারি।

গেমটিতে প্লেয়ার চরিত্র হিসেবে রয়েছে ৯ জন। যাদের মধ্য থেকে একজনকে বেছে নিতে হবে।
গেমটি কাহিনীর অনেকাংশ আপনার নিজস্ব পরিকল্পনায় চলবে। তবে শেষ বা এন্ডিং একটাই রয়েছে গেমটিতে। আর প্রচুর রাজনৈতিক চাল রয়েছে গেমটির কাহিনীতে।

গেমটিতে ব্যবহার করা হয়েছে “দুনিয়া” ইঞ্জিণ। যা আরবি ভাষায় “বিশ্ব” বুঝায়। ইঞ্জিণটি ডাইরেক্ট এক্স ৯ এবং ১০ সমর্থন করে। এছাড়াও গেমটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ফিলিপস এর amBX টেকনোলজির যার সাহায়্যে সঠিক হার্ডওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে গেমটিতে ভাইব্রেশন, এমবেন্ট কালার লাইটস এবং বাতাসে ইফেক্ট আরো জীবন্ত ভাবে উপভোগ করা যাবে।



শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি তাওসিফ তুরাবি, অনলাইনাম (অনলাইন + নাম) ব্লগার তাওসিফ। এখন, ২০১৬ পর্যন্ত আমি ১৬ বছরের এক কিশোর। পড়াশোনা করি শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজে। টেক ব্লগ লিখতে ভালবাসি। সাইন্স ফিকশন আর গল্প লিখতে পছন্দ করি।  জিআর+ ব্লগের এর একজন প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডমিন।
আমাদের একটা ওয়েব ডেভেলপার ফার্ম আছে যার নাম জিআর+ আইটি বাংলাদেশ
এছাড়া আমার ব্যাক্তিগত ব্লগ রয়েছে। আমার ফেসবুক আইডিতে আমার সাথে সর্বক্ষণ যোগাযোগ করতে পারবেন। 


পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট
2:13 PM

ইয়ে মানে আরকি ডাউনলোড লিংক!

Reply
avatar
7:26 PM

paile diye dibam, tumar phone no. ta inbox koro...

Reply
avatar