ইনফ্রারেড বেসড সিকিউরিটি সিস্টেম


আইআর সিকিউরিটি অ্যালার্ম সিস্টেম যেকোনো মুভমেন্ট সনাক্ত করে অ্যালার্ম বাজাতে পারে। এই সার্কিটটি ব্যাংক, হাসপাতাল, অফিস, বাসাবাড়ি বা যেকোনো স্থানে ব্যাবহারযোগ্য।

এই সার্কিটটি একটি আইআর বা ইনফ্রারেড সেন্সর বেস করে বানানো হয়েছে যেখানে একটা ফটো ডায়োড অবিরত ভাবে একটি আইআর সেন্সরের ওপর আইআর আলকরশ্মি ফেলতে থাকে। যখনই কোনও কিছু এই অবিরত আলক রশ্মি ভেঙ্গে দেয় তখনি অ্যালার্ম বেজে ওঠে। এই আলো মানব চোখে অদৃশ্য।

আইআর সেন্সর মূলত একটি আইআর এলইডি ও ফটো ডায়োড দিয়ে গঠিত।এখানে আইআর এলইডি আইআর আলো নিঃসরণ করে এবং সেন্সর কেবল আইআর আলো সেন্স করে।ফটো ডায়োড রিভার্স বায়াসে কারেন্ট কন্ডাক্ট করে। যখন এর ওপর আইআর আলো পরে তখন এর বায়াস বদলে যায় এবং প্রবাহি হয়ে ওঠে। এই ভোল্টেজের পরিবর্তন ভোল্টেজ কম্পারেটর দ্বারা সনাক্তকরন হয় এবং সেই অনুযায়ী আউটপুট আসে।

আমরা এই সার্কিটে একটি আইআর ডায়োড একটি আইআর সেন্সরের সামনে রেখেছি যাতে অবিরত আলো তার ওপর পড়তে পারে। যখন কেউ বা কোনও কিছু এই বিমের মাঝে আসে তখন আলো চলাচল বাধাগ্রস্থ হয় এবং অ্যালার্ম বেজে ওঠে। অ্যালার্ম কিছুক্ষন পর নিজেই থেমে যায় কারন এখানে ৫৫৫ টাইমার আইসি কে মনেস্টেবল মোডে দেওয়া আছে।

এই সার্কিট লেজার দিয়েও তৈরি করা যায়, কিন্তু আইআর ভালো। কারন আইআর ডায়োড মানব চোখে অদৃশ্য।

যন্ত্রাংশ,


  • · IR pair (IR LED and Photodiode)
  • · 555 timer IC
  • · IC LM358
  • · Resistor 100, 10k, 100k, 330, 220 ohm
  • · Capacitor 10uF
  • · Variable resistor – 10k
  • · Buzzer
  •  


সার্কিট ডায়াগ্রাম


আমরা ভোল্টেজ কম্পারেটর হিসেবে আমরা এলএম ৩৫৮ ইউজ করেছি যা মূলত একটি অপারেশনাল অ্যামপ্লিফায়ার। এটি দুটো ইনপুট কারেন্টের মাঝে তুলনা করে এবং নন ইনভারটার ইনপুটের কারেন্ট ইনভারটার ইনপুট থেকে কম হলেই ভোল্টেজ সুইচ করে। নন ইনভারটার পিন ফটো ডায়োডের সাথে এবং ইনভারটার পিন পটেন্সিওর সাথে দেওয়া হয়েছে।আউটপুট পিন ৫৫৫ আইসি এর ট্রিগার পিনে দেওয়া আছে।

যখন আইআর রেডিয়েশন ফটো ডায়োডের ওপর পড়ে, নন ইনভার্টের থেকে ইনভার্টের ভোল্ট বা আউটপুট বেশি থাকে। তখন আউটপুটে থাকে + কারেন্ট। আর যখন ফটো ডায়োডে আর আলো পড়ে না তখন অ্যালার্ম চালু হয়, অর্থাৎ ট্রিগার পিনে পজিটিভ কারেন্ট আসে।



নোটঃ

  1. · সাধারণত আইআর এলইডি এর রেঞ্জ ২ মিটার। তবে একে লেন্স দ্বারা বিবর্ধিত করা যায়।
  2. · এসি বা হাই পাওয়ার অ্যালার্ম ব্যাবহার করা যায় বাযারের যায়গায়, তবে রিলে সুইচের সাহায্যে।
  3. · আইআর এলইডি ও সেন্সর এক সমান্তরালে থাকতে হবে।
  4. · সেন্সরের সেন্সিটিভিটি ভেরিএবল রিসিস্টর দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।.



রেফারেন্সঃ





শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি তাওসিফ তুরাবি, অনলাইনাম (অনলাইন + নাম) ব্লগার তাওসিফ। এখন, ২০১৬ পর্যন্ত আমি ১৬ বছরের এক কিশোর। পড়াশোনা করি শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজে। টেক ব্লগ লিখতে ভালবাসি। সাইন্স ফিকশন আর গল্প লিখতে পছন্দ করি।  জিআর+ ব্লগের এর একজন প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডমিন।
আমাদের একটা ওয়েব ডেভেলপার ফার্ম আছে যার নাম জিআর+ আইটি বাংলাদেশ
এছাড়া আমার ব্যাক্তিগত ব্লগ রয়েছে। আমার ফেসবুক আইডিতে আমার সাথে সর্বক্ষণ যোগাযোগ করতে পারবেন। 


পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট