টুইটার আসছে নতুন সাজে!



ফেসবুকের পরে পৃথিবীর জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার।]
বিশ্বের জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার আরো সহজ এবং নতুনদের জন্য আরো আকর্ষণীয় করতে নিজেদের কিছু নিয়ম পুরোপুরি নতুন করে সাজাচ্ছে।



ব্যবহারকারীরা এখন পোস্টে ১৪০ অক্ষরের বাউন্ডারি না ভেঙ্গেই ছবি ও ভিডিও টুইট করতে পারবেন। সেই সাথে ব্যবহারকারীদের মধ্যে চ্যাটিঙ্গের ব্যাবস্থাও বদলাচ্ছে সাইটটি।
টুইটারের কো ফাউন্ডার এবং বর্তমান সিইও জ্যাক ডরসি বলেছেন,
নতুনদের আকর্ষণ করার জন্য ২০১৫ সাল থেকেই চেষ্টা করে যাচ্ছে টুইটার।
ব্যবহারে বিভ্রান্তিই টুইটারে নতুনদের আকর্ষণ না করার প্রধান কারণ হিসেবে মনে করা হয়।
এই বছরে আমাদের জন্য পণ্য বিশুদ্ধ করা এবং একে সহজ করে তোলাই অগ্রাধিকার পাবে।
আমি মনে করি, টুইটার কেন ব্যবহৃত হবে এর পেছনে একটা কাহিনী থাকবে এবং এটিই কেন আপনি টুইটার ব্যবহার করতে থাকবেন তা মজবুত করবে।
যখন কেউ টুইট করে, তার কোনো একটা অর্থ থাকে।



ব্যবহারকারীদের অনেকেই নতুন এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং উৎসাহ দিয়েছেন। এই পদক্ষেপকে ‘ইতিবাচক পরিবর্তন’ বলে চিহ্নিত করেছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা।


নতুন পরিবর্তন কি কি আসছে টুইটারে?


ফটো ও ভিডিওর মতো মিডিয়া অ্যাটাচমেন্টগুলো অক্ষরসীমার মধ্যে পড়বে না।
প্রত্যুত্তরে @ দিয়ে কোনো নাম লিখে টুইট করা হলে, @ দিয়ে দেয়া নাম গণনা করা হবে না।
ব্যবহারকারীরা পুনরায় টুইট করতে পারবেন এবং তারা তাদের বিভিন্ন উক্তি, পুরনো পোস্ট এবং নতুন মন্তব্য নতুনভাবে টুইট করতে পারবেন।
কোনো নতুন টুইট কোনো ইউজারনেম দিয়ে শুরু হলে, তা ওই ব্যবহারকারীর অনুসারীরা ছাড়া অন্য কেউ দেখতে পাবেন না।


সর্বশেষ পরিবর্তনটির ফলে টুইটারে বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি অনেকটাই কমে যাবে। কেননা কমেন্টে উল্লেখ করা ইউজারনেমটি তারাই দেখতে পাবে, যারা ব্যবহারকারীকে ফলো করছে এবং ব্যবহারকারীরাও তাদের ফলো করছে।
নতুন এই নিয়ম ভাঙার জন্য অনেকেই ইউজার নেমের আগে ও পরে ফুলস্টপ দিচ্ছেন (.@ইউজারনেম.)।


গার্টনারের বিশ্লেষক ব্রায়ান ব্লাউয়ের মতে, নতুন ব্যবহারকারীদের আকৃষ্ট না করতে পারার যে সমস্যার সম্মুখীন টুইটার হচ্ছে, নতুন এই পরিবর্তনের ফলে তার সমাধান হবে না।
২০১৬ চলতি বছরের শেষের দিকে এসব পরিবর্তন করা হবে।


সোর্সঃ দৈনিক নয়া দিগন্ত এবং গার্ডিয়ান

শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি তাওসিফ তুরাবি, অনলাইনাম (অনলাইন + নাম) ব্লগার তাওসিফ। এখন, ২০১৬ পর্যন্ত আমি ১৬ বছরের এক কিশোর। পড়াশোনা করি শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজে। টেক ব্লগ লিখতে ভালবাসি। সাইন্স ফিকশন আর গল্প লিখতে পছন্দ করি।  জিআর+ ব্লগের এর একজন প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডমিন।
আমাদের একটা ওয়েব ডেভেলপার ফার্ম আছে যার নাম জিআর+ আইটি বাংলাদেশ
এছাড়া আমার ব্যাক্তিগত ব্লগ রয়েছে। আমার ফেসবুক আইডিতে আমার সাথে সর্বক্ষণ যোগাযোগ করতে পারবেন। 


পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট