টাইম মেশিন নামক বিখ্যাত বইটির পিডিএফ কপি

আসসালামু আলাইকুম।
পৃথিবীর সবচেয়ে সাড়া জাগানো বইগুলোর মধ্যে একটি হল টাইম মেশিন। এইচ. জি. ওয়েলসের লেখা এই বইটিই শুধু নয়, তার প্রতিটি বইয়ের্ বিশ্বজোড়া খ্যাতি। টাইম মেশিন বইটি একটি সায়েন্স ফিকশন এবং একটি অরিজিনাল ক্লাসিক। যে কোন বয়সের যে কাউকে আকৃষ্ট করে রাখার মত সব উপাদান এতে আছে। সময় পরিভ্রমণ নিয়ে এত চমৎকার গল্প হয়ত দুনিয়াতে আর নেই। চতুর্থ মাত্রা সময়কে চমৎকার ভাবে ব্যাখ্যা করা এই গল্পের কাহিনী গড়ে উঠেছে ভবিষ্যতের নিরীহ শান্ত মানুষ এবং আরেকদল দানবীয় মানুষকে নিয়ে। তাদের মাঝে হারিয়ে গিয়ে লেখকের ফিরে আসা এবং আবার হারিয়ে যাওয়া নিয়েই চমকপ্রদ এই কাহিনী। লেখক তার আবিষ্কৃত মেশিনে করে গিয়েছিলেন ভবিষ্যতের পৃথিবীতে। সেখানে অবাক হয়ে দেখেছেন, কত পরিবর্তন হয়ে গেছে আজকের মানুষ। সবাই যেন শিশু। শিশুদের মতই তাদের আচার-আচরণ। কিন্তু, আরেকদিকে মাটির নিচে বসতি গড়েছে আরেকদল মানুষ। নাম তাদের মোড়লক। সন্ধ্যার পর তাদের দখলে চলে যায় পুরো পৃথিবী। লেখক বুঝতে পারলেন, মানুষ দুই ভাগ হয়ে গেছে। খারাপ মানুষেরা তাদের সর্বনিম্ন স্তরে নেমে গিয়ে হয়ে গেছে হিংস্র, মানুষখেকো এই দানব। আর ভালোরাও এখন হয়ে গেছে একদমই শিশুদের মত। কোন খারাপ যাদের মধ্যে নেই। একদমই অন্য জগতে এসে টাইম মেশিন উধাও হয়ে গেল লেখকের। সব মিলিয়ে একক অন্যরকম বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী "দি টাইম মেশিন"!
বইটি পড়তে চান? ডাউনলোড করে নিন।
আপাতত এখানেই শেষ করছি। আল্লাহ হাফেজ।

শেয়ার করুন

লেখকঃ

আমি দুইটি করে হাত, পা কান, চোখ বিশিষ্ট একজন মানুষ। নাম তাহমিদ হাসান মুত্তাকী। আমি একজন মুসলিম। বাংলাদেশের অধিবাসী। বয়স ১৫ বছর। নবম শ্রেণিতে পড়ি।। গ্রিন রেঞ্জারস+ এর প্রতিষ্ঠাতাদের একজন। আমাকে ফেসবুকে পেতে এখানে যান।

Image result for facebook.icon 30x30   Image result for Google Plus.icon 30x30

পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট
10:08 AM

thank you. post more and more book review. :)

Reply
avatar
5:52 PM

তোমারেই তো আজকাল দেখা যায় না

Reply
avatar
11:31 AM

এসএসসি তে পাশ করার চেষ্টায় আছি :P

Reply
avatar